ইস্কান্দার মির্জা ছিলেন একজন বাঙালি রাজনীতিবিদ এবং পাকিস্তানের প্রথম প্রেসিডেন্ট।

বিএনএসঃ

ইস্কান্দার মির্জা ছিলেন একজন বাঙালি রাজনীতিবিদ এবং পাকিস্তানের প্রথম প্রেসিডেন্ট। তিনি ১৯৫৬ থেকে ১৯৫৮ সাল পর্যন্ত এই পদে দায়িত্বপালন করেন। এর পূর্বে ১৯৫৫ থেকে ১৯৫৬ সাল পর্যন্ত তিনি পাকিস্তানের শেষ গভর্নর জেনারেল হিসেবে দায়িত্বপালন করেন।। ইস্কান্দার মির্জার পুরো নাম সাহেবজাদা সৈয়দ ইস্কান্দার আলি মির্জা । ১৩ নভেম্বর ১৮৯৯ সালে মুর্শিদাবাদে তার জন্ম এবং ১৩ নভেম্বর ১৯৬৯ সালে ৭০ বছর বয়সে তিনি লন্ডনে ইন্তেকাল করেন। পাকিস্তান সেনাবাহিনী থেকে মেজর জেনারেল পদে অবসর নেন।

ব্রিটিশ ভারতীয় সেনাবাহিনীতে কিছুকাল অবস্থান করার পর ইস্কান্দার মির্জা ইন্ডিয়ান পলিটিকাল সার্ভিসে যোগ দেন। ১৯৪৬ সালে তিনি ভারতের জয়েন্ট সেক্রেটারি হন। ১৯৪৭ সালে পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার পর প্রধানমন্ত্রী লিয়াকত আলি খান তাকে প্রতিরক্ষা সচিব হিসেবে নিয়োগ দেন। বাংলা ভাষা আন্দোলনের পর পূর্ব পাকিস্তানে অস্থিরতা দেখা দিলে খাজা নাজিমুদ্দিন তাকে প্রদেশের গভর্নর নিযুক্ত করেন। ১৯৫৫ সালে মালিক গোলাম মুহাম্মদের পর তিনি পাকিস্তানের গভর্নর জেনারেলের দায়িত্ব লাভ করেন। ১৯৫৬ সালে সংবিধান প্রণয়নের পর তিনি প্রথম প্রেসিডেন্ট হন। এ সময় দেশে রাজনৈতিক অস্থিরতা বিরাজ করছিল। ১৯৫৮ সালে তিনি সংবিধান স্থগিত করে সামরিক আইন জারি করেন। সেনাপ্রধানকে প্রধান সামরিক আইন প্রশাসক নিযুক্ত করা হয়। রাজনীতিতে সামরিক বাহিনীর প্রভাব তার সময়ে শুরু হয়। সামরিক আইন জারির বিশ দিন পর প্রধান সামরিক আইন প্রশাসক আইয়ুব খান তাকে ক্ষমতা থেকে অপসারণ করেন। ইস্কান্দার মির্জা লন্ডনে নির্বাসিত হন। ১৯৬৯ সালের ১৩ নেভেম্বর তিনি সেখানে ইন্তেকাল করেন।