সুমাইয়া আক্তার শিখার লেখা কবিতা, শুধু তুমি নেই

কবিতা
শুধু তুমি নেই !

সুমাইয়া আক্তার শিখা  ।

তোমার পাশে থেকেও মনের কাছে যেতে পারিনি
এটা আমার ব্যর্থতা,

বার বার তোমার মনের কোনে
থাকতে পারিনি,এ আমার ভুল।

জানি ভুল টা কখনো হবে না ক্ষমা,
আজো সে ভুলের মাশুল গুনছি দাড়িয়ে শহরের পাথরের রাস্তায়।।

গাড়ি গুলো কোথাও থেমে নেই,
থেমে নেই পথিকের পথ চলা।।

শুধু তুমি নেই এ পথে, স্টেশনে বাস আছে,
যাত্রী ছাউনিতে পা রাখার স্থান নেই।

তবু ফাকা সব কিছু, কারণ তুমি নেই,
তাই সব কিছু আজ মলিন লাগছে।।

যদিও কোলাহল থেমে নেই,
থেমে নেই শহরের গতি,
রাস্তায় আজো ট্রাফিক চাচা দাড়িয়ে, সে অবৈধ গাড়ি থামিয়ে।
হপ্তা নিতে ব্যাস্ত।।

ফুটপাত এখনো দখলে নেয় দোকানীরা,
চাঁদা নিতেও আসে এলাকার বড় ভাই।।

কিছু থেমে নেই,
সব কিছু আগের মতই আছে।
শুধু তুমি নেই।।

চৌরাস্তার মোড়ে ট্রাফিক জ্যামটা এখনো আছে,
শুধু তুমি নেই।।

পৃথিবীতে কিছু থেমে নেই,
শুধু তোমার স্মৃতি কাঁদিয়ে বেড়ায়।।

এই পিচ ঢালা রাস্তাটাকে,
এই শহরের কাক গুলোকে,
তারা রোজ তোমার বেলকনিতে বসে।।

বসে তোমার জন্য কাঁদে,
তাদের কান্নার শব্দ,
ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে,
শুধু তুমি নেই।।

আজ চারদিকে স্তব্ধ,
কারো মনে কোন সুখ নেই,
কবির কলমে ভাষা নেই।।

কবি আজ ভাষার অভাবে ভোগছে,
প্রতিবাদি মানুষের আজ স্থান নেই,
তারা আজ জেলের মশা গুনতে ব্যাস্ত।।

তুমি আবার এসো,
পৃথিবীর বুকে মানুষ হয়ে,
বিদ্রোহী মানুষ হয়ে।।

তুমি নেই,
তাই আজ বিবেকের কাঠগড়াতে তালা,
সত্য আজ পানির দামে ক্রয় হয়।

জাতির স্বপ্নে কালো পর্দা পড়েছে।।

চারদিকে শুধু অন্ধকার,
ভালবাসা পেলাম না তোমার।।

না দিলাম তোমাকে মানুষ হতে,
তুমি আবার এসো বিদ্রোহী হয়ে,
পৃথিবীকে দেখব ভালবেসে।।

তুমি নেই তাই,
প্রেমের কবিতাটা কেঁদে কেঁদে
রুপ নিয়েছে পাল্টিয়ে,
নতুন রুপে বিদ্রোহী কবিতা।।

সব কিছুতেই পরিবর্তনের ছোয়া,
সব চাকা চলছে অবিরত,
সবকিছু নিয়ে আজো রাজনীতির মাঠ গরম।।

চারদিকে টিভি ক্যামেরার গন্ডগোল,
কে কাকে বলে
কে যে কি বলে।।

আজো জনগন বুঝতে পারেনি,

আজ তুমি নেই,
তোমাকে বড্ড মনে পড়ে।।

দেখে চলেছি কত না আজব খেলা।
আজো পৃথিবী তার রুপ দেখাতে ব্যাস্ত।।

নেতারা তাদের ক্ষমতা প্রদর্শনে,
আমলারা তাদের চেহারাটা দেখাতে।।

আর মানু্ষ ব্যাস্ত আজব খবরে ভরা চ্যানেল দেখতে।।

চারদিকে সবাই প্রদর্শিত হয়।
সবকিছুতেই শুধু তুমি নেই।।
তাই শুধু তোমারই অপেক্ষায় আছি।